লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর দীপ চরে ব্যাবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যা

0
16

ডেস্ক রিপোর্ট – আলোকিত স্বদেশ   

লালমনিরহাটের তিস্তা নদীর দীপ চরে এক ব্যাবসায়ীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় স্হানীয় থানায় অনন্ত ১৩/১৪ জন অজ্ঞাত ব্যাক্তির নামে একটি হত্যা মামলা হয়েছে। নিহত ব্যাবসায়ীর নামে আবদুল হালিম (৫৪)। নিহত আবদুল হালিমের বাড়ি রংপুর জেলার কাউনিয়া উপজেলার হারাগাছ ইউনিয়নের পাইকারটারি গ্রামে। তার পিতার নাম ছমের উদ্দিন।

প্রতিবেদন সূত্রে জানা যায়- গত ৬ জানুয়ারী লালমনিরহাট জেলা সদরের খুনিয়াগাছ ইউনিয়নের জৈনিক ব্যাবসায়িলীন আবদুল হালিম কে পাওনা টাকা দেয়ার কথা বলে তার বাড়িতে ডেকে নিয়ে এসে হত্যা করেছেন বলে অভিযোগ উঠেছে।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়- গত ৫ জানুয়ারি মঙ্গলবার আনুমানিক রাত ৮ টার দিকে আবদুল হালিমকে পাওনা টাকা দেয়ার কথা ছিল একই এলাকার ব্যাবসায়ী মজিবর রহমানের। পরে আবদুল হালিম কে হারাগাছের টাংরুর বাজারের আলেফের চায়ের দোকানে নিয়ে গিয়ে পাওনা টাকার বদলে চড়থাপ্পড় দেন মজিবর রহমান।

মজিবর রহমানের যোগসাজশে বিরোধ মীমাংসার কথা বলে সেখান থেকে লালমনিরহাটের হরিণচড়া (মিলনবাজার) এলাকার ফজলু নামের এক তামাক ব্যাবসায়ীর বাড়িতে নিয়ে যান। এরপর সেখানে বৈঠকের নামে পুনরায় আব্দুল হালিমকে মারধর করে। একপর্যায়ে আবদুল হালিম অজ্ঞান হয়ে গেলে স্হানীয়রা তাকে উদ্ধার করে হারাগাছ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পাঠিয়ে দেন। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসকরা আবদুল হালিমকে মৃত ঘোষণা করেন। পরে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স কতৃপক্ষ হারাগাছ থানায় বিষয়টি অবহিত করেন।

হারাগাছ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে আবদুল হালিমের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্ত শেষে তার ছেলের কাছে হস্তান্তর করেন। পরে নিহত আবদুল হালিমের ছেলে শাহীনুর গত ৫ জানুয়ারি সন্ধায় লালমনিরহাট সদর থানায় ১৩/১৪ জন অজ্ঞাত ব্যাক্তির নামে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here